পাইকারি পেঁয়াজে কেজিতে লাভ ৮৩ টাকা!
বাংলাদেশ, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ১ দিন আগে
  বীর খেতাবপ্রাপ্তদের সাথে নিয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি  বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চ-কার্গোর সংঘর্ষ  ফুলবাড়ীতে হিন্দু বাড়ীতে হামলা; মন্দিরে অগ্নিসংযোগ, ছয়জন আটক  কুড়িগ্রামে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস পালিত  বিপিএলে বিসিবি’র খাবার খেয়ে অসুস্থ ১৭ সাংবাদিক  আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ‘অস্ত্র কারখানা’  নবজাতককে দেখতে গিয়ে বাবা ও নানার মৃত্যু  দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক ৩ দিনের রিমান্ডে  কলাপাড়ায় বাস কাউন্টার দখল নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২  তিতাসে বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা  ইসলাম ধর্মে মুগ্ধ হয়ে মুসলিম হলেন রুপম দাস  জাপা’র এমপিকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে আ. লীগের ২২ নেতাকর্মীর নামে মামলা  ভোলায় ধানক্ষেতে প্রতিবন্ধীর গলাকাটা লাশ  বরিশালে শিক্ষক ও বখাটের ধর্ষণে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী পুত্র সন্তানের মা  এডিসি জাহাঙ্গীরের উদ্যোগে বিদ্যুৎ পেল ১৫টি হিন্দু পরিবার  ভূরুঙ্গামারীতে ট্রাক্টরচাপায় একজন নিহত  পাল্টাপাল্টি ছুরিকাঘাতে জামাই ও শাশুড়ি নিহত  আসামি আজিজ বিদেশে, নিরপরাধ আজিজ কারাগারে!  হানিমুনে ‘নার্ভাস’ মিথিলা  উত্তরপূর্ব ভারতে বিক্ষোভ চলছেই, আসামে নিহত ৫

পাইকারি পেঁয়াজে কেজিতে লাভ ৮৩ টাকা!

Avatar

একুশের চোখ

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৬, ২০১৯ ৬:০৮ অপরাহ্ণ

ঘাটতি, সরবরাহ কম অজুহাতে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে পেঁয়াজ। এতে কপাল খুলেছে আড়তদার ও মজুতদারদের। মোকাম থেকে পেঁয়াজ কেনা কেজি ১৩৭ টাকা। বিক্রি করছে ২২০ টাকা দরে। পাইকারিতেই কেজিতে লাভ ৮৩ টাকা। পেঁয়াজ নয় যেন আলাদিনের চেরাগ পেয়েছে।

শনিবার রাজধানীর সবচেয়ে বড় পেঁয়াজের আড়ত পুরান ঢাকার শ্যামবাজারে অভিযানেই এর প্রমাণ মিললো। অভিযান চলাকালে মেসার্স রিতা মুক্তা বাণিজ্যালয়ে পেঁয়াজের ক্রয় রসিদ দেখতে চাওয়া হয়। রসিদে ক্রয় মূল্য লেখা ১৩৭ টাকা। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি বিক্রি করছে ২২০ টাকা। অর্থাৎ পাইকারিতে কেজিতে লাভ করছে ৮৩ টাকা, যা দেখে অবাক বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাজার তদারকি টিম।

অভিযান পরিচালনাকারী জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল বলেন, প্রতিষ্ঠানটি ক্রয় রসিদের তথ্য অনুযায়ী, ১৩ নভেম্বর ১৩৭ টাকা কেজি এবং ১৪ নভেম্বর ১৫৫ টাকা কেজি মূল্যে ক্রয় করে স্টক করেছে, যা সেই পেঁয়াজ আজ বিক্রয় করছেন কেজি ২২৯ টাকা। ১৩৭ টাকায় কেনা পেঁয়াজের ক্রয় মূল্যের সঙ্গে খরচ পরিবহন ভাড়া যোগ করলে সর্বোচ্চ মূল্য ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা হবে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি ২২০ টাকা বিক্রি করছে। এটা কীভাবে সম্ভব? অর্থাৎ ক্রাইসিস তৈরি করে তারা অনৈতিকভাবে দাম বাড়িয়েছে যুক্তিযুক্ত কোনো কারণ হতে পারে না। এরা মজুত করে পেঁয়াজের মূল্য বাড়াচ্ছে। আসলে তারা জনগণকে জিম্মি করে বাড়তি মূল্য আদায় করছে। এ অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠান মেসার্স রিতা মুক্তা বাণিজ্যালয়ের বিক্রেতা জুলহাস মীর জানান, আগের রসিদ দেখে জরিমানা করা হয়েছে। আগে কম কেনা হলেও আজ কিনতে হয়েছে ২১০ টাকা দরে। পেঁয়াজ বিক্রি করে লাভ নেই উল্টো লস হচ্ছে বলে জানান তিনি।

আব্দুল জব্বার মণ্ডল জানান, পেঁয়াজের পাইকারি ব্যবসায়ীরা অভিনব কায়দায় দাম বেশি নিচ্ছে। একটি প্রতিষ্ঠান দাম লিখে রেখেছে ২১০ টাকা কিন্তু বিক্রি করছে ২২৫ ও ২৩০ টাকায়। তাদের পেঁয়াজ কেনা ১৮০ টাকা। তার মানে অনিয়মের কারণে বেশি দাম বাড়ছে।

অভিযান চলাকালে পেঁয়াজের মূল্য তালিকা না টানিয়ে মূল্যবৃদ্ধিতে কারসাজি করা, প্রদর্শিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রির অপরাধে মেসার্স বদিউজ্জামান অ্যান্ড সন্সকে ২০ হাজার টাকা, বিসমিল্লাহ ট্রেডার্সকে ২০ হাজার, রিতা মুক্তা বাণিজ্যালয়কে ৩০ হাজার, আজমির ভান্ডারকে ২০ হাজার, নিউ ভাই ভাই বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার টাকাসহ পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে মোট ১ লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

তিনি জানান, আড়তদাররা জানিয়েছেন বাজারে পেঁয়াজের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে এবং ঈশ্বরদীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসা শুরু হয়েছে, যা ১৬০-১৮০ টাকায় বিক্রয় হচ্ছে। আশা করছি দাম কমে যাবে।

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০১৯
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« অক্টোবর   ডিসেম্বর »
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
আর্কাইভ
প্রধান উপদেষ্টা: এম লোকমান হোসাঈন
উপদেষ্টামন্ডলী: মোঃ শাহাব উদ্দিন বাচ্চু, হাবিবা আক্তার মনি
আইন উপদেষ্টা:
প্রকাশক ও সম্পাদক: কাওসার মাহমুদ (মুন্না)
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: খাঁন আব্বাস
নির্বাহী সম্পাদক: রাশেদ খান (সুমন)
যুগ্ন নির্বাহী সম্পাদক: সোহানুর রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: কবির হোসেন
যুগ্ন ব্যবস্থাপনা সম্পাদক:
বার্তা সম্পাদক: মেহেদী হাসান
যুগ্ম বার্তা সম্পাদক:
স্থায়ী কার্যালয়: রহমতপুর বাজার, বাবুগঞ্জ বরিশাল।
অস্থায়ী কার্যালয়: ভূঁইয়া ভবন, ফকির বাড়ি রোড ,বরিশাল। মুঠোফোন: 01812159112, [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
Developed by: NEXTZEN LIMITED