বাবা-মা’র ফেলে দেওয়া আক্রান্ত শিশুটিকে বাঁচাতে সাহায্য চায় নানা-নানি
বাংলাদেশ, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ১ দিন আগে
  বীর খেতাবপ্রাপ্তদের সাথে নিয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি  বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চ-কার্গোর সংঘর্ষ  ফুলবাড়ীতে হিন্দু বাড়ীতে হামলা; মন্দিরে অগ্নিসংযোগ, ছয়জন আটক  কুড়িগ্রামে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস পালিত  বিপিএলে বিসিবি’র খাবার খেয়ে অসুস্থ ১৭ সাংবাদিক  আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ‘অস্ত্র কারখানা’  নবজাতককে দেখতে গিয়ে বাবা ও নানার মৃত্যু  দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক ৩ দিনের রিমান্ডে  কলাপাড়ায় বাস কাউন্টার দখল নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২  তিতাসে বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা  ইসলাম ধর্মে মুগ্ধ হয়ে মুসলিম হলেন রুপম দাস  জাপা’র এমপিকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে আ. লীগের ২২ নেতাকর্মীর নামে মামলা  ভোলায় ধানক্ষেতে প্রতিবন্ধীর গলাকাটা লাশ  বরিশালে শিক্ষক ও বখাটের ধর্ষণে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী পুত্র সন্তানের মা  এডিসি জাহাঙ্গীরের উদ্যোগে বিদ্যুৎ পেল ১৫টি হিন্দু পরিবার  ভূরুঙ্গামারীতে ট্রাক্টরচাপায় একজন নিহত  পাল্টাপাল্টি ছুরিকাঘাতে জামাই ও শাশুড়ি নিহত  আসামি আজিজ বিদেশে, নিরপরাধ আজিজ কারাগারে!  হানিমুনে ‘নার্ভাস’ মিথিলা  উত্তরপূর্ব ভারতে বিক্ষোভ চলছেই, আসামে নিহত ৫

বাবা-মা’র ফেলে দেওয়া আক্রান্ত শিশুটিকে বাঁচাতে সাহায্য চায় নানা-নানি

Avatar

একুশের চোখ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিতঃ মে ২১, ২০১৯ ৭:০৪ অপরাহ্ণ

অনলাইন সংস্করণ// অজানা রোগে আক্রান্ত চার বছর বয়সী শিশু আবিরের শরীরটা দিনদিন তাকে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় সন্তানকে ফেলে পালিয়েছে তার বাবা-মা। অথচ শিশুটিকে বাঁচাতে তার নানা-নানি মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। কিন্তু কোনো সাড়া পাচ্ছেন না।

আবির ও আপন দুই ভাই। বাবা-মায়ের কাছে আদরে আছে ছোট ভাই আপন। কিন্তু আবিরের কপালে জোটেনি বাবা-মায়ের আদর স্নেহ।

আবিরের জন্মের আট মাস বয়সে টিকা দেয়ার পর থেকে খিঁচুনি আর জ্বর শুরু হয়। এরপর ধিরে ধিরে শরীর শুকিয়ে যেতে শুরু করে। শরীরের সবগুলো হাড় বেরিয়ে আসা শুরু করে। শিরাগুলো টান ধরেছে ফলে স্বাভাবিকভাবে হাত-পা নড়াচড়া করতে পারে না আবির। দেখতে অনেকটা বৃদ্ধ মানুষের মতো।

অসুস্থ হওয়ার পর আবিরের বাব-মা ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেরার কাশিপুর গ্রামে নানা- নানির কাছে ফেলে গেছে আবিরকে। এরপর থেকে আবিরের আর খোঁজ রাখেনি তার বাবা-মা। দরিদ্র দিনমজুর নানা লিয়াকত আলী ও নানি মঞ্জুরা বেগম এখন আবিরের একমাত্র ভরসা।

নানি মঞ্জুরা বেগম জানায়, পাঁচ বছর আগে যশোর সদর উপজেলার সাতমাইল এলাকার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের আলাউদ্দীনের ছেলে দিনমজুর আল-আমিনের সঙ্গে তাদের মেয়ে রতনা খাতুনের বিয়ে হয়। এরপর এক বছরের মাথায় আবিররের জন্ম হয়। জন্মের পর সুস্থই ছিল আবির। কিন্তু জন্মের আট মাস পর স্থানীয় টিকাদান কেন্দ্রে নিয়ে টিকা দেয়ার পর থেকে প্রচণ্ড খিঁচুনি শুরু হয়। সঙ্গে অনেক জ্বর। এরপর বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে নেয়া হয়েছে কিন্তু কোনো উন্নতি হয়নি। পরে খিঁচুনি কমলেও শরীর শুকিয়ে যেতে থাকে তার।

তিনি আরও জানান, অসুস্থ হওয়ার পর মেয়ে-জামাই আবিরকে আমাদের কাছে রেখে চলে যায়। এরপর থেকেই আমাদের কাছে রয়েছে। পরে মেয়ের ঘরে আবার একটা সন্তান আসে। অথচ বড় ছেলের কোনো খোঁজখবর রাখে না তারা।

প্রতিবেশীরা জানান, তার চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। যা দিনমজুর নানা লিয়াকত আলীর পক্ষে কোনোভাবেই জোগাড় করা সম্ভব না। তাই শিশুটিকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে।

নানা লিয়াকত আলী বলেন, নাতির চেহারা অস্বাভাবিক হওয়ায় কেউ তার কাছে যেতে চায় না। আমরা দুজনই তার দেখভাল করি। স্থানীয় অনেক ডাক্তার দেখিয়েছি কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। দিনে দিনে শুকিয়ে যাচ্ছে। এখন তার খাবার ও ওষুধ কেনা এবং ডাক্তার দেখানোর টাকা জোগাড় করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

নানা লিয়াকত আলী সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন। আবিরের বিষয়ে কথা বলতে যোগাযোগ করা যাবে ০১৭৩৪ ৬৪৪৪৯৯ নম্বরে।

আবিরের বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. অপূর্ব কুমার সাহা বলেন, আগে কখনও এমন রোগ দেখিনি। এটা কি ধরনের রোগ বলতে পারবো না। পরীক্ষা নীরিক্ষা করে দেখতে হবে কি কারণে এমন হয়েছে? তবে তিনি জানান, টিকা দেয়ার জন্য এমনটা হয়নি। জাগো নিউজ

আর্কাইভ

মে ২০১৯
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« এপ্রিল   জুন »
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
আর্কাইভ
প্রধান উপদেষ্টা: এম লোকমান হোসাঈন
উপদেষ্টামন্ডলী: মোঃ শাহাব উদ্দিন বাচ্চু, হাবিবা আক্তার মনি
আইন উপদেষ্টা:
প্রকাশক ও সম্পাদক: কাওসার মাহমুদ (মুন্না)
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: খাঁন আব্বাস
নির্বাহী সম্পাদক: রাশেদ খান (সুমন)
যুগ্ন নির্বাহী সম্পাদক: সোহানুর রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: কবির হোসেন
যুগ্ন ব্যবস্থাপনা সম্পাদক:
বার্তা সম্পাদক: মেহেদী হাসান
যুগ্ম বার্তা সম্পাদক:
স্থায়ী কার্যালয়: রহমতপুর বাজার, বাবুগঞ্জ বরিশাল।
অস্থায়ী কার্যালয়: ভূঁইয়া ভবন, ফকির বাড়ি রোড ,বরিশাল। মুঠোফোন: 01812159112, [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
Developed by: NEXTZEN LIMITED